March 27, 2019

মিশন শক্তি এবং অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিশন 

অ্যান্টি স্যাটেলাইট পরীক্ষা অত্যন্ত বিতর্কিত বিষয়। এর ফলে মহাকাশে সশস্ত্রীকরণ হচ্ছে বলে মনে করা হয়, যা ১৯৬৭ সালের আউটার স্পেস ট্রিটি অনুসারে নিষিদ্ধ।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বুধবার ঘোষণা করেছেন ভারত পৃথিবীর চতুর্থ দেশ হিসেবে মহাকাশে সাফল্যের সঙ্গে উপগ্রহঘাতী মিসাইলের সাহায্যে উপগ্রহ ধ্বংস করেছে।

উপগ্রহঘাতী অস্ত্র রয়েছে এমন হাতে গোনা কয়েকটি দেশের অন্তর্ভুক্ত হয়ে পড়ল ভারত। কেবলমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চিন এবং রাশিয়া তাদের এই ক্ষমতা এতদিনে প্রদর্শন করেছে। ইজরায়েলের হাতেও এই ক্ষমতা রয়েছে বলে মনে করা হয়, তবে তারা কখনও তা প্রয়োগ করেনি।

মিশন শক্তির তাৎপর্য কী!

বিভিন্ন দেশ ন্যাভিগেশন, যোগাযোগ, এবং মিসাইল অস্ত্রাগার গাইডেন্সের জন্য উপগ্রহ ব্যবহার করে থাকে। এর দ্বারা শত্রুপক্ষের মিসাইলে আঘাত হানা যায়, যার জেরে অন্য দেশের পরিকাঠামোকে পঙ্গু করে দেওয়া যায়, তাদের অস্ত্রকে অকার্যকর করে ফেলা যায়।
গত শতাব্দীর সাতের দশকে, ঠান্ডা যুদ্ধ যখন  তুঙ্গে, সে সময়েই  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সোভিয়েত ইউনিয়ন তাদের অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইলের পরীক্ষা চালিয়েছিল। তবে কোনও দেশই অন্যের বিরুদ্ধে ভুল করেও এ মিসাইল ব্যবহার করেনি।

সব দেশই তাদের নিজেদের যে সব উপগ্রহ আর কার্যকর নেই, তার উপরেই এ ধরনের পরীক্ষা চালিয়ে থাকে। বিদেশমন্ত্রকের তরফ থেকে জারি করা এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এ পরীক্ষার জন্য লক্ষ্যবস্তু হিসেবে ভারতীয় উপগ্রহকেই বেছে নেওয়া হয়েছিল, তবে ঠিক কোন উপগ্রহের উপর আঘাত হানা হয়েছিল, তা নির্দিষ্ট করে জানানো হয়নি।

মিশন শক্তি নিয়ে বিবৃতি জারি করেছে বিদেশমন্ত্রক

বিদেশমন্ত্রকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে এই পরীক্ষা ভারতের নিজের মহাকাশ সম্পদের সুরক্ষার জন্যই করা হয়েছে।
বিদেশমন্ত্রকের তরফ থেকে বলা হয়েছে, “নিজেদের মহাকাশ সম্পদের সুরক্ষায় ভারতের সামর্থ্য বিচার করার জন্যই এই পরীক্ষা করা হয়েছে। মহাকাশের নিজের দেশের স্বার্থরক্ষা করা ভারত সরকারের দায়িত্ব। সাফল্য সম্পর্কে সুনিশ্চিত হয়েই এই পরীক্ষা করা হয়েছে, এবং এর ফলে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা বৃ্দ্ধি নিয়ে সরকারের আগ্রহ সূচিত করে"
।ভারতের “মহাকাশে অস্ত্র প্রতিযোগিতায় প্রবেশ করার কোনও উদ্দেশ্য নেই” বলে জানিয়ে দিয়েছে বিদেশমন্ত্রক।
তথ্য সূত্র- ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস
Follow Us On UNACADEMY-Click Here

No comments:

Post a Comment